যদি সন্দেহ থাকে তাহলে চ্যালেঞ্জ রইলো

1
147
মোঃ খোরশেদ আলম।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ন্যায্যতা, আমলাতান্ত্রিক সমাজ এবং পেশাগত জায়গায় যেভাবে স্বচ্ছতা তৈরি করে গিয়েছেন। একই ভবে তার কন্যা, আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছি স্বনির্ভর, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, দেশপ্রেম, নৈতিকতা নিয়ে সততার সাথে দৃঢ়চেতা বাংলাদেশ গড়ার অভিপ্রায়ে।

বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর কনস্টেবল নিয়োগ কার্যক্রম চলমান একইভাবে। নরসিংদী জেলার পুলিশ কনস্টেবল নিয়োগে আমাকে নিয়োগ কমিটির অন্যতম সদস্য হিসেবে দায়িত্ব প্রদান করা হয়।

নরসিংদী জেলার পুলিশ কনস্টেবল নিয়োগ পরীক্ষায় চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত করি,
১। পুরুষ সাধারণ-৪৩ জন
২। পুরুষ মুক্তিযোদ্ধা-০৭ জন
৩।পুরুষ পোষ্য-০৩ জন
৪। পুরুষ আনসার-০২ জন
৫। নারী সাধারণ-২১ জন

এই ৭৬ জন শতভাগ মেধা, যোগ্যতা ও স্বচ্ছতার সাথে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়েছে। স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় নিয়োগ প্রাপ্ত পুলিশ সদস্য সারাজীবন স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সাথে দায়িত্ব পালন করবে দেশের স্বার্থে।

নরসিংদী জেলা পুলিশ সুপার মিরাজ উদ্দিন আহমেদ বিপিএম, পিপিএম মহোদয়কে ধন্যবাদ।

নিয়োগ প্রক্রিয়া স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ ভাবে সম্পন্ন করতে নরসিংদী জেলা পুলিশ সুপার মহোদয় অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন।

কনস্টেবল নিয়োগ প্রত্যাশিত ৫০% এর অধিকেই একেবারে হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান। যাদের বাবা কৃষিকাজ করেন, কারো বাবা দিনমজুর। নিয়োগ বাণিজ্য হলে হতদরিদ্র পরিবারের ছেলে মেয়ে গুলোর স্বপ্নভঙ্গ হতো। একটা পরিবারের হাসিমুখ, আনন্দ হারিয়ে যেতো।

যখন ওদের নিয়োগের জন্য আমি বসি। আমার বারবার মনে হচ্ছিলো এই ছেলেগুলোর কারণে একদিন দেশ, সমাজ, পরিবার বদলে যাবে। কারণ ওরা সম্পূর্ণভাবে বিনা পয়সায়, বিনা তদবিরে, নিজ মেধা, যোগ্যতায় পুলিশ বাহিনীতে যোগ দিতে যাচ্ছে। আমার জন্য এটা যে কতটা মানসিক শান্তি আর প্রশান্তির সেটা বর্ণনা করা অসম্ভব।

শান্তি শৃঙ্খলা নিরাপত্তা প্রগতি’র সর্বোচ্চ স্তরে অধিষ্ঠিত বৃহত্তর কুমিল্লার কৃতি সন্তান বাংলাদেশ পুলিশের সর্বজ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা, ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম(বার) মহোদয়কে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। স্যারের নির্দেশে সারা বাংলাদেশেই স্বচ্ছ ও দুর্নীতিমুক্ত পুলিশ কনস্টেবল নিয়োগ চলছে।

আইজিপি স্যারের নির্দেশ ; নিয়োগ প্রক্রিয়া সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্ন করা, শতভাগ স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি, ঢাকা রেঞ্জের আমাদের সকলের প্রিয় অভিভাবক হাবিবুর রহমান বিপিএম(বার), পিপিএম (বার) মহোদয়ের আন্তরিকতা ও সার্বক্ষণিক মনিটরিং সত্যিই প্রশংসনীয়। স্বচ্ছতা ও নিরপেক্ষ নিয়োগ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন এবং শতভাগ নিশ্চিত করতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন আমাদের প্রিয় স্যার।

শুধুমাত্র যারা যোগ্য তারাই জায়গা পেয়েছেন। চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারি নরসিংদী জেলার কনস্টেবল নিয়োগে কোন বাণিজ্য এবং তদবির গ্রহণযোগ্য হয়নি। কারো যদি ভুল ধারণা বা সন্দেহ থাকে তার প্রতি চ্যালেঞ্জ রইলো।

পুলিশ বাহিনীর স্বচ্ছ নিয়োগ প্রক্রিয়ার একজন গর্বিত সদস্য হিসেবে যতটা না আনন্দিত তারচেয়ে বেশি আনন্দ ও গর্ব লাগছে আমার কাছে এক্সাম দিয়ে যোগ্যতাবলে যারা জায়গা করে নিয়েছে দেশ সেবার জন্য তাদের প্রতি।

লেখক : অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, খ-সার্কেল, নারায়ণগঞ্জ।

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here