বয়স বেঁধে দেয়ায় যুবলীগের বর্তমান কমিটির ৮০ শতাংশই বাদ পড়বেন

0
81

ডেস্ক রিপোর্ট।। 

বয়স নির্ধারণ করায় দীর্ঘ সময় পর নতুন নেতৃত্বের সুযোগ দেখছেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতারা।বয়স বেঁধে দেয়ায় নেতা হওয়ার প্রতিযোগিতা থেকে ছিটকে পড়ছেন যুবলীগের বর্তমান কমিটির একশর বেশি সদস্য। চেয়ারম্যান, সাধারণ সম্পাদকসহ যুবলীগের সভাপতিমণ্ডলীর ২৭ সদস্যের মধ্যে বাদ পড়ছেন ২৫ জন। আর মারা গেছেন দুইজন। এছাড়া, কেন্দ্রীয় কমিটির ৮০ শতাংশ নেতাই বাদ পড়তে পারেন।  

৩২ বছর বয়সী শেখ ফজলুল হক মনির হাত ধরে ১৯৭২ সালের ১১ই নভেম্বর তারুণ্যনির্ভর যুবলীগ প্রতিষ্ঠা হলেও প্রায় এক দশক ধরে বয়স্কদের নেতৃত্বেই চলছে যুবকদের এই সংগঠন। যুবলীগের প্রথম গঠনতন্ত্রে বয়সসীমা ৩৫ বেঁধে দেয়া ছিল। সেটি উঠিয়ে দেয়ায় গত চার দশকে যুবলীগের নেতৃত্বের বয়স বেড়েই চলেছে।

তবে সংগঠনটির সপ্তম কংগ্রেসের আগ মুহূর্তে এবার যুবকদের বয়স বেঁধে দিলেন আওয়ামী লীগ সভাপতি।

যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ১৫১ জন। এর মধ্যে ২৭ প্রেসিডিয়ামের বেশিরভাগেরই বয়স ৬০ বছর পেরিয়ে গেছে। সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আতাউর রহমান ও নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন বয়স সীমার মধ্যে থাকলেও তাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ থাকায় ইতোমধ্যে দল থেকে ছিটকে পড়েছেন।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদের বয়স ৬০-এর ওপরে। নাসরিন জাহান চৌধুরী শেফালী ছাড়া পাঁচ যুগ্ম সম্পাদকও ৫০ ছাড়িয়েছেন।

৯ সাংগঠনিক সম্পাদকের মধ্যে সালাউদ্দিন মাহমুদ জাহিদ ও আমির হোসেন গাজীর বয়স ৬০-এর কোঠায়। অন্যদের বয়সও ৫০ পেরিয়েছে। ২৫ জন সহ-সম্পাদক এবং ৪১ জন কার্যনির্বাহী সদস্যের মধ্যে বেশিরভাগ নেতার বয়স ৬০ পেরিয়ে গেছে। কেন্দ্রীয় সদস্যদেরও বয়স গড়ে ৫৫ বছরের ওপরে।

কেন্দ্রীয় কমিটির অধিকাংশ নেতা হুট করে বাদ পড়ায় কিছুটা হতাশা তৈরি হলেও দলীয় প্রধানের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় রয়েছেন তারা।

যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ বলেন, সাম্প্রতিক ঘটনায় আমাদের এই সংগঠন যথেষ্ট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই ক্ষতি পুষিয়ে দিতে পারবে এমন নেতাদের হাতেই নেতৃত্ব তুলে দেয়া হবে।

যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ডা. মোখলেছুজ্জামান হিরু বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আমরা এই সংগঠনের জন্য কাজ করেছি। বিভিন্ন বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে সংগঠনকে এই পর্যায়ে এনেছি। নেত্রী যদি আমাদের আওয়ামী লীগে যোগ দেয়ার সুযোগ করে দেন,তাহলে আমরা অবশ্যই যুবলীগ ছেড়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করবো।

সংগঠন থেকে অনেকে বাদ পড়লেও দল থেকেই স্বচ্ছ এবং যোগ্য নেতৃত্ব বাছাই সম্ভব বলে মনে করছেন নবীন নেতারা। আর যুবলীগে বয়স সীমা বেঁধে দেয়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে সাবেক ছাত্রলীগ নেতারা বলছেন নতুন করে তাদের সুযোগ সৃষ্টি হলো।

আগামী ২৩শে নভেম্বর যুবলীগের সপ্তম কংগ্রেসের মাধ্যমে সৎ, দক্ষ, ত্যাগী, পরীক্ষিত, উচ্চ শিক্ষিত ও স্বচ্ছ ভাবমূর্তির নেতারা প্রাধান্য পাবেন বলে আশাবাদী তারা। যাদের বয়স হবে ৫০ এর নিচে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here