প্রস্রাব চেপে রাখলে যে সমস্যাগুলো হতে পারে

0
206

লাইফ স্টাইল ডেস্ক ।। 

প্রস্রাব চেপে রাখার অভ্যাস খুব সাধারণ ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে নারীদের ক্ষেত্রে এটি খুবই কমন ঘটনা। পর্যাপ্ত পাবলিক টয়লেটের অভাব এর বড় কারণ। এছাড়া দীর্ঘ সময় ধরে মিটিং থাকলে কিংবা পাবলিক ট্রান্সপোর্টে চড়লেও এভাবে প্রস্রাব চেপে রাখেন অনেকে।

প্রস্রাব চেপে রাখার এই অভ্যাস যদি হয় নিয়মিত, তাহলে খুব শিগগিরই আপনি বিপদে পড়তে যাচ্ছেন। কারণ এর ফলে তৈরি হবে মারাত্মক শারীরিক সমস্যা।

আমাদের ব্লাডারের ৪০০-৫০০ মিলিমিটার পর্যন্ত ইউরিন ধরে রাখার ক্ষমতা আছে। ব্ল্যাডারে বেশি ইউরিন জমা হলে তা ক্রমাগত ফুলে যেতে থাকে। প্রথমদিকে সমস্যা বুঝতে না পারলেও এই অভ্যাসের ফলে এক সময় আপনি গুরুতর শারীরিক সমস্যা টের পাবেন।

বেশিক্ষণ ইউরিন চেপে থাকতে থাকতে ব্লাডারের মাসল দুর্বল হয়ে যায়। এর ফলে একটা সময় আপনার অজান্তেই ইউরিন বেরিয়ে আসবে।

নিয়মিতভাবে দীর্ঘক্ষণ ইউরিন চেপে থাকলে ইউটিআই বা ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশনে আক্রান্ত হবেন আপনি। কারণ ইউরিন ধরে রাখার ফলে ব্লাডারে ব্যাকটেরিয়ার জন্ম নেয়। এর আগে যদি আপনার কখনো ইউটিআই হয়ে থাকে, তাহলে সহজেই এই অসুখে আক্রান্ত হয়ে পড়তে পারেন। তাই প্রচুর পানি পান করুন এবং প্রস্রাব চেপে রাখবেন না।

আপনার যদি নিয়মিতভাবে অনেকক্ষণ ইউরিন চেপে রাখার অভ্যাস থাকে তাহলে ব্লাডার বড় হয়ে যেতে পারে। এর ফলে ইউরিন আর একটুও সময় ধরে রাখতে পারবেন না আপনি। প্রস্রাব করতেও সমস্যা হবে। তাই প্রস্রাব চেপে রাখার অভ্যাস করবেন না।

প্রস্রাবের বেগ আসার অনেক্ষণ পরে প্রস্রাব করলে আপনার ব্লাডার পুরোপুরি খালি হবে না। কিছুটা ইউরিন ব্লাডারে থেকে যাবে। এই সমস্যা থেকে বাঁচতে সতর্ক হতে হবে আপনাকেই।

একজন প্রাপ্তবয়স্ক সুস্থ মানুষ কতবার টয়লেটে যাবেন, তা ব্যক্তিবিশেষে নির্ভর করে। তবে একজন সুস্থসবল মানুষের দিনে ছয় থেকে আটবার টয়লেটে যাওয়া উচিত। এর কম হলে তা চিন্তার বিষয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here